Transcript: GCU Chancellor Professor Muhammad Yunus Speaks at University’s First Summer Graduation Ceremony

[widgetkit id=103]

Principal and Vice Chancellor, Pro Vice Chancellors, Chairman of the Court, Members of the Court and the Senate, Distinguished guests, Members of the staff of Glasgow Caledonian University, Graduates, Ladies and Gentlemen:

It is my great privilege to welcome you to this graduation and Awards ceremony.

This graduation ceremony starts with a very good news.Yesterday the Principal and Vice Chancellor of this university, Professor Pamela Gilles, has been decorated as the COMMANDER OF THE BRITISH EMPIRE by Her Majesty the Queen. It is a great recognition for you, Prof Pamela Gilles, it is great recognition of the university you lead. For the honor and prestige you bring to us I wish to propose a great applause for you.

The graduation ceremony is is one of the most memorable events in anybody's life. This comes at the end of a long journey of academic and social preparations. This ceremony tells you that you are now prepared to begin your life to achieve your life purpose.

জাতীয় সংসদে গ্রামীণ ব্যাংক ও প্রফেসর ইউনূস প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রীর প্রদত্ত বক্তব্য বিষয়ে ইউনূস সেন্টারের প্রতিবাদ

button english

 

গত ২৬ জুন ২০১৩ তারিখে জাতীয় সংসদে গ্রামীণ ব্যাংক ও প্রফেসর ইউনূসের বিষয়ে অর্থমন্ত্রী ড. আবুল মাল আবদুল মুহিত কিছু বক্তব্য দিয়েছেন। মাননীয় অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যে দেশের মানুষ অবাক হয়েছে। দেশের অর্থমন্ত্রীর নিকট থেকে একজন সম্মানিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে সংসদে দাঁড়িয়ে এধরনের মিথ্যা তথ্য কেউ আশা করে না। অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে নিম্নলিখিত বক্তব্য তুলে ধরা হলো।

muhit-yunus১.০ মাননীয় অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যঃ গ্রামীণ সামাজিক ব্যবসার প্রতিষ্ঠানগুলো সবই ইউনূসের ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠান।
জবাবঃ বক্তব্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। গ্রামীণ নামধারী সামাজিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলি ডঃ ইউনূসের ব্যক্তিগত সম্পত্তি নয়। প্রফেসর ইউনূস বিভিন্ন সময়ে পত্র পত্রিকার মারফৎ বহুবার বলেছেন কোন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে তাঁর ব্যক্তিগত একটি শেয়ারও নেই। মাননীয় অর্থমন্ত্রী যদি একটি কোম্পানীও দেখাতে পারেন যেখানে ডঃ ইউনূসের এক বা একাধিক ব্যক্তিগত শেয়ার আছে তাহলে মন্ত্রী মহোদয়ের বক্তব্যের প্রতিবাদ করার আর কোন প্রয়োজনীয়তা থাকবে না। যদি তা দেখাতে না-পারেন তাহলে সংসদে একজন সম্মানিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মিথ্যা বক্তব্য দেয়ার জন্য মন্ত্রী মহোদয়ের ক্ষমা চাওয়া উচিত হবে।

২.০ মাননীয় অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যঃ ডঃ ইউনূস গ্রামীণফোন থেকে কয়েক হাজার কোটি টাকা ডিভিডেন্ড নিয়েছেন।
জবাবঃ যে প্রতিষ্ঠানে ডঃ ইউনূসের কোন শেয়ার নেই, এমন কি স্টক মার্কেট থেকে কেনা শেয়ারও নেই, সেখান থেকে ডঃ ইউনূস কীভাবে কয়েক হাজার কোটি টাকা ডিভিডেন্ড নিলেন সেটা মাননীয় অর্থমন্ত্রীকে সংসদের নিকট, এবং তার মাধ্যমে জাতির নিকট ব্যাখ্যা করে বলতে হবে। অথবা মিথ্যা বলার জন্য ক্ষমা চাইতে হবে।

দেশের মানুষ গ্রামীণ ব্যাংককে গরীব মহিলাদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিতে দেবে না

button englishমুহাম্মদ ইউনূস

Muhammad Yunus Economist 16431গ্রামীণ ব্যাংক তদন্ত কমিশন আগামী জুলাই ২ তারিখে বিয়াম অডিটোরিয়ামে গ্রামীণ ব্যাংকের আইন কাঠামো পরিবর্তনের বিষয়ে তাদের সুপারিশগুলি আলোচনার জন্য একটি কর্মশালার আয়োজন করছেন। এই কর্মশালায় অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আবদুল মুহিত তাঁর অভিজ্ঞতালব্ধ মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করবেন বলেও ঘোষণা করা হয়েছে। এই কর্মশালায় দেশের অভিজ্ঞ ও বিশিষ্ট ব্যাক্তিদের সাথে কমিশনের প্রণীত “গ্রামীণ ব্যাংকের ভবিষ্যৎ কাঠামো: কয়েকটি বিকল্প” – এই শিরোনামে ৮ পৃষ্ঠার একটি ওয়ার্কিং পেপার নিয়ে আলোচনা হবে। 

ওয়ার্কিং পেপারে তিনটি বিকল্প উপস্থাপনা করা হয়েছে। 

এক. গ্রামীণ ব্যাংককে সরকারী ব্যাংক হিসেবে বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংকের আদলে নিয়ে আসা; এতে সরকারের মালিকানা ৫১ শতাংশ বা তার বেশি রাখতে হবে। পরিচালনা পরিষদেও সরকারের সংখ্যা গরিষ্ঠতা থাকতে হবে। 

দুই. গ্রামীণ ব্যাংককে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আদলে ১৯টি বা ততোধিক ক্ষুদ্র গ্রামীণ ব্যাংকে রূপান্তরিত করা যেতে পারে। প্রত্যেকটি ক্ষুদ্র গ্রামীণ ব্যাংক স্বতন্ত্রভাবে নিবন্ধিত হবে। তাদের পরস্পরের মধ্যে কোন আইনগত সম্পর্ক থাকবে না। প্রত্যেকের স্বতন্ত্র ব্যবস্থাপনা কাঠামো থাকবে। গ্রামীণ ব্যাংকের বর্তমান প্রধান কার্যালয়কে এই গ্রামীণ ব্যাংক পরিবারের নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হবে। প্রতিটি ক্ষুদ্র গ্রামীণ ব্যাংকের নিবন্ধন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হবে গ্রামীণ ব্যাংক নিয়ন্ত্রণকারী শীর্ষ প্রতিষ্ঠান। এই শীর্ষ প্রতিষ্ঠান ক্ষুদ্র গ্রামীণ ব্যাংকের সকল ব্যাপারে নজরদারী করবে। দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র গ্রামীণ ব্যাংক পরিবারের মধ্যে সমন্বয় বিধান করবে। শীর্ষ প্রতিষ্ঠানের ব্যয়ভার ক্ষুদ্র গ্রামীণ ব্যাংকগুলিকে বহন করতে হবে। 

Social businesses thriving globally

Prof Yunus, international experts celebrate successes on Social Business Day

fr018-tdsWhen Prof Muhammad Yunus came up with the idea of social business a few years ago, many conventional businesses and economic experts raised eyebrows, expressing doubt whether it would ever work.

Although the theory is yet to offer widespread successes in terms of actions, the amount of attention it has generated locally and globally — in developed and developing world — proves the anti-poverty pioneer has passed the first test of getting people engaged.

This was again evidenced yesterday as around 1,000 people, many from abroad, spent the day in Dhaka, to hear the worldwide developments in social business.

They thronged the Radisson Hotel in the city in the morning to attend the fourth Social Business Day.
The event coincided with the birthday of Nobel laureate Prof Yunus, who turned 74 yesterday.
The day’s proceedings started with showering Yunus with birthday wishes. Everybody in the vast hall-room of the hotel stood and sang the Happy Birthday song.

Sir Richard Branson, owner of Virgin Group, sang birthday wishes with a group of people in a pre-recorded video displayed at the event.

Yunus meets Leading Retail Company CEOs

[widgetkit id=101]

Nobel laureate Professor Yunus met the CEO's of top clothing retailers at the Consumer Goods Forum held in Tokyo on June 11-13. Professor Yunus was a key note speaker at the conference. He invited the CEOs of the top retail companies for a private meeting with him on the sidelines of the conference to discuss the situation of garment industry in Bangladesh. They had a hour long exclusive meeting with Professor Yunus. They briefed him about their support for Bangladesh. Prof Yunus elaborated his proposals on voluntary international minimum wages for garment workers for each garment producing country, and the use of "Happy Workers' Tag" for offering workers' welfare programs by independent social business companies. CEOs showed positive interest in both the subjects. He urged the CEOs to join hands to make Bangladesh a highly attractive country for sourcing garment products and help bring back the companies which left the country. He emphasized the social impact of garment industry in Bangladesh in terms of women empowermnet along with its impact on poverty reduction.

CEOs present in the meeting were Mr. Michael Duke, CEO and President of Walmart, Mr. Georges Plassat, CEO and President of Carrefour, Mr. Gareth Ackerman, Chairman of Pick and Pay Stores Ltd, Mr. Tadashi Yanai, Chairman and CEO of Uniqlo and Mr. Motoya Okada, CEO of AEON Ltd, Japan.

hard-extreme.com tellyseries