Second Graduation Ceremony of Japan-Automechanic School

Press Release (19 December, 2017)

Sixteen Children of Grameen Borrowers Graduates this Year

Nobel Laureate Professor Muhammad Yunus with the graduates of Japan Auto Mechanic School Ltd. at the 2nd Graduation Ceremony on 18th December 2017. Photo: Yunus Centre

The 2nd graduation ceremony of Japan Automechanic School Ltd. took place on December 18th, 2017 with 16 students graduating as automechanics. All graduates are children of Grameen Bank borrowers.  Nobel Laureate Professor Muhammad Yunus presided over the graduation ceremony. Mr Hirao Tsuneaki, Managing Director of Japan Automechanic Limited (JAL) and others were present at the graduation ceremony.

 

The School started operations in January 2015 with an initial intake of 10 students. The school has now 31 students and aims to scale up its capacity gradually to 200 students.  The School is an international joint venture social business between Japanese Foundation NPO SK Dream Japan, Grameen Shikkha and Rangs Workshop Ltd. Its aim is to train Bangladeshi youths in the maintenance and repair of automobiles especially Japan manufactured ones. This venture addresses the issue of unskilled workforce in Bangladesh; providing hands on mechanic and English language training, enabling them to work in any part of the globe. Highly skilled local and foreign trainers from different countries including Japan and Australia teach at the school.

In the admission process, children of Grameen Bank borrowers are screened once a year and the selected applicants get interest free education loan from Grameen Shikkha to pursue their degrees. Students get all equipment, dress, accommodation covered in the loan and also one year grace period before starting to pay back the loan through long term installments.

In his speech, Professor Muhammad Yunus congratulated the new graduates and their parents on the great occasion and inspired them to become leaders in automobile maintenance services in Bangladesh and other countries. He mentioned that another automobile related joint venture with a Japanese company  will be launched very soon which will market reliable automobile spare  parts for better maintenance.

------

প্রেস রিলিজ

জাপান অটোমেকানিক স্কুলের ২য় গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

গ্রামীণ ব্যাংক ঋণীদের ১৬ জন সন্তান এ বছর গ্র্যাজুয়েশন লাভ করলো

গতকাল ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭ জাপান অটোমেকানিক স্কুলের ২য় গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানে ১৬ জন শিক্ষার্থী গ্র্যাজুয়েশন লাভ করলো। গ্র্যাজুয়েট ছাত্ররা সকলেই  গ্রামীণ ব্যাংক পরিবারের সন্তান। নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। জাপান অটোমেকানিক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব সুনিয়াকি হিরাও এবং অন্যরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

২০১৫ সালে ১০ জন ছাত্র নিয়ে জাপান অটোমেকানিক স্কুলের যাত্রা শুরু। বর্তমানে এর ছাত্র সংখ্যা ৩১ জন এবং এই সংখ্যাকে ক্রমান্বয়ে ২০০-তে নিয়ে যাবার পরিকল্পনা রয়েছে স্কুলটির। জাপান অটোমেকানিক স্কুল জাপানের অলাভজনক ফাউন্ডেশন এস কে ড্রিম, গ্রামীণ শিক্ষা এবং র‌্যাংগস ওয়ার্কশপ লিঃ-এর একটি আন্তর্জাতিক জয়েন্ট ভেঞ্চার সামাজিক ব্যবসা। এর লক্ষ্য বাংলাদেশী তরুণদেরকে বিভিন্ন ধরনের গাড়ী বিশেষত জাপানী গাড়ী রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামতের উপর  আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ দেয়া। বাংলাদেশের বেকার অদক্ষ তরুণদের গাড়ী মেকানিক্স-এর উপর দু’বছর হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ দানের পাশাপাশি ইংরেজী ভাষায় তাদেরকে দক্ষ করে তোলার মাধ্যমে বিশ্বের যে কোনো স্থানে দক্ষ মেকানিক হিসেবে কাজ করার উপযোগী করে গড়ে তোলা হয় এই স্কুলে। বাংলাদেশ ও বিদেশের বিশেষ করে জাপান ও অস্ট্রেলিয়ার সুদক্ষ প্রশিক্ষকদের মাধ্যমে ছাত্রদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

প্রতি বছর এই স্কুলে ভর্তির জন্য গ্রামীণ ব্যাংক সদস্য পরিবারগুলোর সন্তানদের নিকট থেকে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়। ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে চূড়ান্তভাবে বাছাইকৃত ছাত্রদেরকে প্রথম বছরের প্রশিক্ষণ ও থাকা-খাওয়ার খরচ নির্বাহ করার জন্য গ্রামীণ শিক্ষা থেকে সুদমুক্ত ঋণ প্রদান করা হয়। দ্বিতীয় বছরে ছাত্ররা ইন্টার্ণ হিসেবে কাজ করে উপার্জন করে এবং এ সময়ে তাদেরকে স্কুল থেকে ভাতা প্রদান করা হয়। এই ভাতার অংশ থেকে তারা প্রথম বছরের ঋণ পরিশোধ করে। দুই বছরের প্রশিক্ষণ শেষ করে গ্র্যাজুয়েশন লাভের পূর্বেই ছাত্ররা তাদের ঋণ পরিশোধ করে দেয়।

তাঁর বক্তব্যে প্রফেসর ইউনূস তরুণ গ্র্যাজুয়েটদের ও তাদের অভিভাবকদের অভিনন্দন জানান এবং বাংলাদেশে ও বিশ্বের অন্যত্র অটোমোবাইল রক্ষণাবেক্ষণ সেবায় নেতৃত্ব দিতে গ্র্যাজুয়েটদেরকে উৎসাহিত করেন। তিনি বলেন যে, খুব শীঘ্রই একটি জাপানী কোম্পানীর সাথে অটোমোবাইল সম্পর্কিত আরেকটি জয়েন্ট ভেঞ্চার চালু হতে যাচ্ছে। নবগঠিত এই কোম্পানীটি গাড়ীর উন্নততর রক্ষণাবেক্ষণের জন্য গাড়ীর নির্ভরযোগ্য খুচরা যন্ত্রাংশ বাজারজাত করবে।

ছবির ক্যাপশন: ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭ জাপান অটোমেকানিক স্কুলের ২য় গ্র্যাজুয়েশন অনুষ্ঠানে সনদপ্রাপ্ত ছাত্রদের সাথে নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস। ছবি: ইউনূস সেন্টার

 

hard-extreme.com tellyseries