Yunus Centre arranges Khazanah Scholarship for six Bangladeshi students

Press Release (19 April, 2017)

Bangladeshi recipients of Khazanah Scholarship with Nobel Laureate Professor Muhammad Yunus at Yunus Centre on April 17, 2017.

Six Bangladeshi students received scholarships for pursuing graduate and postgraduate programs at foreign universities under the Khazanah Scholarship Program facilitated by Yunus Centre this year. Among the awardees 5 have been chosen for scholarships in  Malaysian Universities and 1 has been chosen for a global scholarship in Cambridge University and  University of California at Berkeley.

 

The assessments for Khazanah Scholarship Program were held from January 23 to January 26, 2017 in Bangladesh. After several rigorous screening phases, 18 candidates made it to the final. From the finalist, 6  students managed the attractive  scholarships.

Every year Yayasan Khazanah Foundation, Malaysia in collaboration with Khazanah Nasional's partner and investee companies, offers scholarships to deserving candidates from Bangladesh, Indonesia and Palestine to pursue their undergraduate and postgraduate education at selected leading universities in Malaysia and beyond. Nobel Laureate Professor Muhammad Yunus proposed to the CEO of Khazanah to offer these scholarships to Bangladeshi students in 2008. He agreed and since then this scholarship is given every year facilitated by Yunus Centre.

Yunus Centre liaises with top universities and schools in Bangladesh for the candidate selection and also receives nomination from Grameen Bank and Grameen Shikkha on potential candidates for the scholarship award. The children of Grameen Bank members get the opportunity to pursue undergraduate degrees at different prestigious universities in Malaysia while  candidates of all background are offered postgraduate scholarships.

Khazanah Asia Scholarship Program was established in 2007 after Professor Yunus delivered the Khazanah Global Lecture at the Khazanah Foundation. The Foundation has awarded a good number of scholarships to the children of Grameen families under this program starting in 2009. Khazanah, in association with Yunus Centre selected 6 candidates from Bangladesh last year under the same program. So far, around 40 students have received the scholarship from Bangladesh through Yunus Centre since 2009.

END

প্রেস রিলিজ

ইউনুস সেন্টারের মাধ্যমে খাজানাহ্ বৃত্তি পেল ৬ বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রী

ইউনূস সেন্টারের সহায়তায় খাজানাহ্ ফাউন্ডেশন বৃত্তি কর্মসূচির অধীনে বিভিন্ন বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ে ¯œvতক ও ¯œvতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যয়নের জন্য এ বছর বৃত্তি লাভ করেছে ছয় বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রী। এদের মধ্যে পাঁচ জন মালয়েশিয়ার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং একজন বৈশ্বিক বৃত্তি নিয়ে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে অথবা বার্কলের ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ায় অধ্যয়নের জন্য মনোনীত হয়েছে।

খাজানাহ্ বৃত্তি কর্মসূচির জন্য এ বছরের ২৩ থেকে ২৬ জানুয়ারীর মধ্যে গ্রামীণ ব্যাংকে এই বাছাই প্রক্রিয়া অনুষ্ঠিত হয় । কয়েকটি কঠোর বাছাই পর্বের মধ্য দিয়ে ১৮ জনকে চূড়ান্ত বাছাই পর্বে অংশগ্রহণের জন্য বাছাই  করা হয়। এদের মধ্যে ৬ জন চূড়ান্তভাবে এই আকর্ষণীয় বৃত্তির জন্য নির্বাচিত হয়।

মালয়েশিয়ার ইয়াইয়াসান খাজানাহ্ ফাউন্ডেশন প্রতি বছর খাজানা ন্যাশনাল এর পার্টনার ও বিভিন্ন বিনিয়োগকারী কোম্পানীর সহযোগিতায় মালয়েশিয়া ও অন্যান্য দেশের বিভিন্ন নির্বাচিত বিশ্ববিদ্যালয়ে ¯œvতক ও ¯œvতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যয়নের জন্য বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া ও প্যালেস্টাইন থেকে উপযুক্ত ছাত্র বাছাই করে থাকে। নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস ২০০৮ সালে বাংলাদেশের ছাত্র-ছাত্রীদের এই বৃত্তির সুযোগ দেবার জন্য খাজানাহ্-র প্রধান নির্বাহীর কাছে প্রস্তাব করেন। তিনি এই প্রস্তাবে সম্মত হবার পর খাজানাহ্ ইউনূস সেন্টারের সহযোগিতায় বাংলাদেশে এই বৃত্তি প্রদান করে আসছে।

ছাত্র বাছাইয়ের উদ্দেশ্যে ইউনূস সেন্টার বাংলাদেশের সেরা সব বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ করে। এছাড়াও ইউনূস সেন্টার ছাত্র বাছাইয়ের জন্য গ্রামীণ ব্যাংক ও গ্রামীণ শিক্ষা থেকে মনোনয়ন আহ্বান করে। গ্রামীণ ব্যাংকের সদস্যদের সন্তানরা মালয়েশিয়ার বিভিন্ন খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয়ে ¯œvতক পর্যায়ের বৃত্তির এবং যে কেউ ¯œvতকোত্তর পর্যায়ের বৃত্তির সুযোগ পেয়ে থাকে।

নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস খাজানাহ্ ফাউন্ডেশনে “খাজানাহ্ গ্লোবাল লেকচার” প্রদানের পর ২০০৭ সালে “খাজানাহ এশিয়া বৃত্তি কর্মসূচি” চালু হয়। খাজানাহ্্ বৃত্তি চালু হবার পর ২০০৯ সাল থেকে গ্রামীণ ব্যাংক পরিবারের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সন্তান এই বৃত্তি পেয়েছে। গত বছর এই বৃত্তির জন্য বাংলাদেশ থেকে চূড়ান্তভাবে ছয় জন ছাত্র বাছাই করা হয়েছে। ২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত ইউনূস সেন্টারের সহযোগিতায় ৪০ জন বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রী এই বৃত্তি পেয়েছে।

ছবির ক্যাপশন: ১৭ এপ্রিল ২০১৭ ইউনূস সেন্টারে নোবেল লরিয়েট প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূসের সাথে খাজানাহ্ বৃত্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী ছাত্রদের দেখা যাচ্ছে।

hard-extreme.com tellyseries